ইতিহাস

ভৈরবের বিশিষ্ট সৃজনশীল সমাজকর্মী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জহুরুল হক হলের প্রাক্তন জিএস বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোঃ রফিকুল ইসলাম এর উদ্যোগে এবং তাঁর পরিবার ও ভৈরবের শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিবর্গের সহযোগিতায় ১৯৮৭ সালে রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজের আত্মৃপ্রকাশ ঘটে। প্রতিষ্ঠাকালে কলেজটির ছাত্রী সংখ্যা ছিল মাত্র ৮২ জন। প্রতিষ্ঠাকালীন অধ্যক্ষ ছিলেন প্রাক্তন সরকারি কর্মকর্তা মরহুম আবুল হাশেম।কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য, শিক্ষক কর্মচারীদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই এই কলেজ আকর্ষণীয় ফলাফল করতে সক্ষম হয়েছে। প্রায় প্রতিবারই পাশের হারের দিক থেকেই এই কলেজের অবস্থান ছিল কিশোরগঞ্জ জেলার শীর্ষে। এইচএসসি পরীক্ষায় ধারাবাহিক সাফল্য, শিক্ষা উপযোগী সুন্দর প্রাকৃতিক পরিবেশ ও সাংস্কৃতিক কাযর্ক্রমে অংশগ্রহণের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০০২ সালে কলেজটি জাতীয় পযার্য়ে শ্রেষ্ঠ কলেজের পুরস্কার অজর্ন করে। এই বছরই কলেজের মানবিক বিভাগের দুইজন ছাত্রী ঢাকা বোর্ডের মেধা তালিকায় যথাক্রমে ৯ম ও ১৬তম স্থান অধিকার করে। ২০০৪ সালে এই কলেজের সমাজকর্ম বিভাগের সম্মানীত শিক্ষক জনাব মোঃ শহীদুল্লাহ জাতীয় পযার্য়ে শ্রেষ্ঠ প্রভাষক পুরস্কার অজর্ন করেন। ২০০৬ সালে এই কলেজে স্নাতক পাস ও অনার্স কোর্স চালু হয়।